বৃহষ্পতিবার, 24 ডিসেম্বর 2020 19:08

বিষাদের বুনোহাঁস নির্বাচিত

লিখেছেন
লেখায় ভোট দিন
(0 টি ভোট)
                বিষাদের বুনোহাঁস

বুনোহাঁসগুলি উড়ে যায় কোন সুদূরে--
কুয়াশার বুক মাড়িয়ে, 
মেঘহীন শান্ত আকাশের বুকে
অজানা শিহরণ জাগিয়ে। 
ফেলে যায় অসংখ্য বিষাদের রেশম পালকরাশি,রক্তাক্ত স্মৃতি, 
বিধ্বস্ত স্বপ্নের গৃহস্থালি। 

বুকে তার অদেখা সুদূরের হাতছানি, 
অতীত জলাভূমির দুরন্ত অকর্ষণ।
বারবার ফিরে দেখে---
বিধ্বস্ত জলাভূমির বুকের ভিতর 
সকরুণ নীরব তরঙ্গ,এলোমেলো স্বপ্ন,
অযুত মায়া, অরবিন্দ ভালোবাসা। 

এক অযাচিত অন্ধকার ঘর বাঁধে হৃদপিণ্ডে। 
এখন শঙ্খনীল মন শুধুই নিরাশার অরণ্যে 
গেয়ে চলে মন ভাঙ্গা বিষাদের গান। 
কোন এক অজানা জলাভূমির 
অমোঘ আকর্ষণে বুক বাঁধে। 
নতুন সম্ভাবনাময়, 
অন্য রকম কোনোএক নতুন পৃথিবীর 
মায়াময় অনুভবে।

উড়ে যাও বুনোহাঁস---
এই ক্লেদাক্ত ধরণিকে পিছনে ফেলে, 
সভ্যতার অশুভ্রতাকে পায়ে দলে। 
যেখানে থাকবেনা ক্ষুধার্ত শিকারির 
লোলুপ দৃষ্টি, অযাচিত আস্ফালন,
নির্দয় পঙ্কিল  নির্মমতা।  
দেখো না পিছনে ফিরে---
ফিরে যাও আপন কুলায়,
কোনো এক নির্মল পৃথিবীর পাদপীঠে,
কোনো প্রাণরসে ভরা শুভ্র সভ্যতায়। 
--------------------------------------            
            
33 বার পড়া হয়েছে সর্বশেষ হালনাগাদ মঙ্গলবার, 29 ডিসেম্বর 2020 16:09
শেয়ার করুন
রহিমা আক্তার লিলি

রহিমা আক্তার লিলি নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার তাতারদী গ্রামে ১২ নভেম্বর ১৯৭৭ সনে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ তরেন। তাঁর পিতা মোঃ আব্দুর রহমান একজন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মাতা মোছাঃ আম্বিয়া রহমান। তিনি তিন ভাই ও চার বোনের মধ্যে সকলের বড়। তাঁর স্বামী মোঃ মিজানুর রহমান তিনি পেশায় একজন তড়িৎ প্রকৌশলী। দাম্পত্য জীবনে তিনি এক মন্তানের জননী নাম মারসাদ সাফওয়ান। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি পেশায় একজন শিক্ষিকা ছিলেন তবে বর্তমানে একজন আদর্শ গৃহিণী। বই পড়ার পাশাপাশি লেখালেখির সাথে সম্পৃক্ত হন।

1 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Make sure you enter all the required information, indicated by an asterisk (*). HTML code is not allowed.