বুধবার, 06 জানুয়ারী 2021 10:22

উচ্চবিত্তের রোজনামচা নির্বাচিত

লিখেছেন
লেখায় ভোট দিন
(0 টি ভোট)
                উচ্চবিত্তের রোজনামচা

আমি ভাই বেশ আছি,
নেই কোন চিন্তা। 
আলিশান বাড়ি আছে
গুলশানে তিনটা, বনানীতে তিনটা। 
আলিশান মার্কেট!
সুন্দরী বউ আছে, তিনখানে তিনটা, 
আরাম আর আয়েসে
কেটে  যায় দিনটা।
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা। 

নেশা করে বাড়ি ফিরে
চাঁদাবাজ ছেলেটা,
সৌখিন দাপটে ভরে যায় বুকটা।
আমি ভাই বেশ আছি,  
নেই কোন চিন্তা।

গাড়ি আছে সারি সারি 
মার্সিটিজ,ফেরারি , পাজেরোও পাঁচটা। 
কারি কারি টাকা জমা
নামি দামি ব্যাংকে,
আরও আছে গাড়ি বাড়ি 
বিদেশের মাটিতে।
তাতে কি!
দপ্তরে ফিট আছে সরকারি আমলা
কৌশলে ফাঁকি দেই কর'টা।
আমি ভাই বেশ আছি,  
নেই কোন চিন্তা। 

করোনার বাজারে 
টাকা আসে হাজারে হাজারে, 
রমরমা ব্যবসাটা।
সাধারণ মানুষের বেজে যায় বারটা। 
তাতে কি! 
আমি ভাই বেশ আছি,  
নেই কোন চিন্তা। 

চোর আর বাটপাড়ে ভরা এই দেশটা,
ঘুস দিলে সব হয়, মিলে যায় অংকটা। 
রাজনীতি, দুর্নীতি,ক্ষমতার লিপ্সা, 
দলে দলে কোন্দল 
রসাতলে দেশটা। 
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা। 

অসুখে- বিসুখে পাড়ি দেই বিদেশে 
ছাড়িতে পরি না নেশাটা,
জীবনের স্বাদটা পল্টাতে কিছুটা, 
মাঝে মাঝে নাইটক্লাবে 
কেটে যায় রাতটা। 
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা। 

চাইনিজ খাবারেও ভরে না মনটা
চারিদিকে হাহাকার, জোটে না যে পান্তা।তাতে কি!
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা। 

কারি কারি টাকাতে
গরিবের হক আছে, জানি তা,
তাতে কি!
সরকারি তহবিলে জমা দেই ক'টাকা,
শাড়ি আর লুঙ্গিতে সেরে দেই বাকিটা। 
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা। 

টিভিতে টকশোতে, 
ডাক পড়ে প্রতি রাতে,
চকচকে জামা-জুতা,ঝড় উঠে বক্তৃতা, 
দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোচ্চার,
আওড়াই মুখস্ত  বুলিটা।
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা। 

জনসেবা প্রচারে কেটে যায় দিনটা,
ছবি আর সেলফিতে
ভরে যায় মনটা।
লোকে বলে,দানবীর,সমাজের মাথাটা। 
আরে ভাই! 
সম্মান কিনতে লাগে আর ক'টাকা?
আমি ভাই বেশ আছি, 
নেই কোন চিন্তা।            
            
29 বার পড়া হয়েছে সর্বশেষ হালনাগাদ সোমবার, 18 জানুয়ারী 2021 23:08
শেয়ার করুন
রহিমা আক্তার লিলি

রহিমা আক্তার লিলি নরসিংদী জেলার মনোহরদী উপজেলার তাতারদী গ্রামে ১২ নভেম্বর ১৯৭৭ সনে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ তরেন। তাঁর পিতা মোঃ আব্দুর রহমান একজন অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মাতা মোছাঃ আম্বিয়া রহমান। তিনি তিন ভাই ও চার বোনের মধ্যে সকলের বড়। তাঁর স্বামী মোঃ মিজানুর রহমান তিনি পেশায় একজন তড়িৎ প্রকৌশলী। দাম্পত্য জীবনে তিনি এক মন্তানের জননী নাম মারসাদ সাফওয়ান। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলায় স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জন করেন। তিনি পেশায় একজন শিক্ষিকা ছিলেন তবে বর্তমানে একজন আদর্শ গৃহিণী। বই পড়ার পাশাপাশি লেখালেখির সাথে সম্পৃক্ত হন।

6 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Make sure you enter all the required information, indicated by an asterisk (*). HTML code is not allowed.