বুধবার, 17 ফেব্রুয়ারী 2021 22:00

অতল গহ্বরে!

লিখেছেন
লেখায় ভোট দিন
(0 টি ভোট)
                অতল গহ্বরে!

বড্ড সাধ ছিলো নেতা হবার
নেতার আসনে অধিষ্ঠিত হয়ে
দেশের সেবায় ব্রত হবো! 
বর্তমানের হালচাল 
ভালো নেই দিনকাল। 
ভোটের আগে 
আদর্শ নেতার মুখের বুলি 
মিষ্টি মধুর কথার ঝুলি।
ব্যালট ভোটের খেলা শেষ 
নেতা গায়েব, নিরুদ্দেশ। 

ভোটের আগে কল করলে কেটে 
ফের কল দিত! 
মধুমাখা কুশল বিনিময় চলতো।
এখন কল কাটেও না, ধরেও না।
বারংবার কলের পরে মনে হয়, 
আকাশ থেকে মুক্তির সংবিধান 
নিয়ে নেমেছেন মানবের সেবায়।
ধরে বলেন 'জরুরি মিটিং এ আছি'; পরে কল দিচ্ছি। 
নেতার কল দেয়া হয় না।
মুখের বুলি আর গুলি 
গা সহা হয়ে গেছে। 

গায়ের চামড়া বেশ পুরু,
গণ্ডারের চামড়ার চেয়েও মোটা! 
তোমরা গালি দাও, 
'শুয়োরের বাচ্চা' 'কুত্তার বাচ্চা' 
চাপা কণ্ঠে জবাব দেই জ্বী জনাব,
আপনারাই আমাদের 'বাপ-মা'।
বোঝার শক্তি, বোধগম্যতা 
সব হারিয়েছে নেতৃত্বের কোন্দলে,
অতল গহ্বরে। 
প্রশ্ন করো না, 
নিজের কাছেই উত্তর আছে, জেনে নিও।            
            
24 বার পড়া হয়েছে
শেয়ার করুন
 নাজমুল কবির

নিভৃতচারি কবি যিনি তাঁর মসির আঁচড়ে সামাজিক অবক্ষয়ের বাস্তব চিত্র অঙ্কন করে পাঠক সমাজে বেশ সমাদৃত হয়েছেন। কবি নাজমুল কবির প্রকৃত পক্ষে পহেলা জানুয়ারী উনিশশত ষাট সালে নাটোর জেলার বড়াইগ্রাম থানার বড়াইগ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। নিষ্ঠুর দারিদ্রতাকে জয় করে তিনি দেখিয়েছেন নিজের দৃঢ় আত্ম-প্রত্যয়ের দুঃসহ যন্ত্রনা। তিনি ছোট বেলা থেকেই লেখালেখি পছন্দ করতেন এবং কাপাসিয়া পাইলট হাই স্কুলে অধ্যয়নরত থাকাকালীন সময়েই লেখায় হাতে খড়ি। কাপাসিয়া পাইলট হাই স্কুল হতে এস. এস. সি. এবং কাপাসিয়া কলেজ থেকে এইচ. এস. সি. কৃতিত্বের সহিত পাশ করেন। পরবর্তী সময়ে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে যোগদান করেন। ঢাকায় চাকুরীরত থাকাকালীন অবস্থায় তাঁর লেখা কবিতা সেনাবাহিনী কর্তৃক প্রকাশিত সেনাবার্তায় প্রকাশিত হয় এবং ঐ সময়েই সেনাবাহিনীর গোয়েন্দা পরিদপ্তর ও আই.এস.পি. এর অনুমতিক্রমে বাংলাদেশ বেতার ও টিভির তালিকাভূক্ত গীতিকার হন। তাঁর লেখা গান রেডিও ও টিভিতে নব্বই এর দশকে প্রচারিত হয়েছে। তিনি একাধারে একজন সাহিত্যিক ও অপরদিকে গাজীপুর২৪ডমকম প্রত্রিকার সম্পাদক এবং দৈনিক অপরাধ তথ্য পত্রিকার গাজীপুর জেলার ব্যুরো প্রধান। নবীন কবিদের প্রতি অগাধ ভালোবাসা যার নিত্য দিনের সঙ্গী। প্রকাশিত গ্রন্থসমূহঃ (১) হৃদয়ের মাঝখানে দেয়াল (২) এক বিন্দুতে ভালোবাসা (৩) নির্ঝর ভালোবাসা (৪) কবিতার কারুকাজ (৫) প্রম আসেনি (৬) ভুতের বাসা (৭) মেঘ বালিকার স্বপ্ন (৮) হোমিও মতে চিকিৎসা, হোমিও চিকিৎসা বিষয়ক বই (৯) দ্রোহের অগ্নি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে। এ ছাড়াও ৫টি যৌথ কাব্যগ্রন্থ প্রকাশ করেছেন। তাঁর প্রকাশিত কাব্যগ্রন্থ তাঁর নিজস্ব শৈলী মাধুর্যতার পরিচয় মেলে।

মন্তব্য করুন

Make sure you enter all the required information, indicated by an asterisk (*). HTML code is not allowed.