মঙ্গলবার, 15 জুন 2021 16:16

এই বুঝি বাঘ এলো নির্বাচিত

লিখেছেন
লেখায় ভোট দিন
(0 টি ভোট)
                এই বুঝি বাঘ এলো

বহুদিন ভয়ের সাথে যুদ্ধ করে 
কন্টকাকীর্ণ পথ বেয়ে চলেছি
আজ দিনমণি অস্তাচলে
চারদিকে সাজ সাজ রব
এই বুঝি সন্ধ্যা  এলো 
ঘুটঘুটে অন্ধকার
ঘরের ওপাশে বাঘ ঘুরে বেড়ায়।

শিয়ালের হুক্কাহুয়া ডাকে
মনটা ভয়ে জড়সড়
এইবুঝি বাঘ  আসে কাছে
মাটির ঘর ভেঙে
বাঘের বড় বড় চোখ 
ভয়ে মরে যাই
এ যেন আগুনের কুন্ডলি।

এভাবেই ঘরের মধ্যে লুকিয়ে
 কোনোরকমে বেঁচে আছি
বাহিরে ঘুটঘুটে অন্ধকার
বাঘের হালুমহুলুম হুংকারে
মেদিনী কাঁপে থরথর 
মায়ের কথামতো আঁচল ধরে
চুপটি করে বসে থাকি।

অনেকদিনের শত চেষ্টায়ও 
বাইরে যেতে পারিনা 
জানালা দিয়ে শুধু বাঘ দেখি
মা কেঁদে কেঁদে বলেন, 
তুই আমার অন্ধের যষ্ঠি
অনেক কষ্টে পেয়েছি তোকে
মায়ার আঁচলে লুকিয়ে থাক।

এক রূপসী কন্যকার মায়ামমতায়
বাঘের সামনে যেতে পারি না
তার পায়ের নূপুরের ছন্দ
আমাকে ব্যতিব্যস্ত করে রাখে
পৃথিবীটা এত সুন্দর কেন
সুন্দরীর চাহনির মায়াময় আবেশে
কেনো জানি বাঁচতে ইচ্ছা করে।            
            
50 বার পড়া হয়েছে সর্বশেষ হালনাগাদ সোমবার, 05 জুলাই 2021 01:34
শেয়ার করুন
মীর আব্দুল আউয়াল

মীর আব্দুল আউয়াল, পিতা- মীর আব্দুস শুকুর, মাতা- মোছাম্মৎ করিমন নেছা ১৩ ফেব্রুয়ারী, ১৯৫১ খ্রিস্টাব্দ পাবনা জেলার অন্তর্গত বেড়া উপজেলার দড়িশরিফপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেণ। তিনি রাজবাড়ী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়, রাজবাড়ী সরকারী মহাবিদ্যায় এবং রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ফলিত গণিত বিষয়ে পড়াশোনা করেণ। তিনি ১৯৭৭ খ্রিস্টাব্দ থানা মৎস্য কর্মকর্তা পদে মৎস্য অধিদপ্তরে প্রথম সরকারী চাকুরীতে যোগদান করেণ। ২০০৯ খ্রিস্টাব্দ তিনি চাকুরী হতে অবসর গ্রহন করে সাহিত্য সেবায় আত্মনিয়োগ নিয়োগ করেণ। দেশের বিভিন্ন পত্রপত্রিকা ও ম্যাগাজিনে তার ছোট গল্প ও কবিতা প্রকাশিত হয়। তিনি ফেসবুকে এপার বাংলা এবং ওপার বাংলার বিভিন্ন ব্লগে ধারাবাহিক গল্প ও কবিতা লিখে চলেছেন। এ পর্যন্ত তার ১১টি উপন্যাস ও ৩টি কাব্যগ্রন্থ প্রকাশিত হয়েছে।

এই বিভাগে আরো: « তুমি মানে বর্ষা নামে »

1 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Make sure you enter all the required information, indicated by an asterisk (*). HTML code is not allowed.