মঙ্গলবার, 22 সেপ্টেম্বর 2020 19:44

ঢাকার পথে নির্বাচিত

লিখেছেন
লেখায় ভোট দিন
(1 ভোট)
                অনুগল্প

ঢাকার পথে 
-জামাল বিন ইউনূস 


নিস্তব্ধ রাত। সুনসান নীরব। না পখির কূজন আর না মানুষের গুঞ্জন। চোখেও ঘুম নেই। মনেও প্রশান্তি নেই। রাত শেষ হবারও নাম নেই। ঘড়িতে সময় দেখলো- রাত বারোটা পার! নানা ভাবনায় মাথা ভার হয়ে আসছে ক্রমেই! হঠাৎ-ই ঘুমিয়ে পড়লো নিজের অজান্তে - জিহাদ! 

ফজর নামাজ আদায় করলো এবং বাবার কবর জিয়ারত করলো। জামা-কাপড় গোছালো। প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ব্যাগে উঠালো। নাস্তাটা সেড়ে নিলো। মাকে বললো, 
মা! আমি ঢাকা যাচ্ছি। দুআ করো।
জিহাদের মা চমকে উঠে বললেন, 
হঠাৎ ঢাকায় কেনরে?! বলা নেই, কওয়া নেই... 
হ্যাঁ, মা। আমার এক বন্ধু একটি চাকরি ঠিক করেছে। তাই যাচ্ছি - বললো জিহাদ। 

বাড়িতে থেকে বের হয়ে কোথাও আর দেরি করলো না জিহাদ। সোজা ঢাকার গাড়ি চেপে বসলো। কিন্তু কেউ  জানলো না,জিহাদের এভাবে ঢাকা যাওয়ার কারণ। জানাবেই বা কাকে?! 
সেই ছোট্ট থেকেই কারো সাথে মনের মিল নেই। বড়ভাই,মেজোভাই এবং সবাই একিই রকম! কেউ ভালো নজরে দেখে না! তাই অনেকটা অভিমান নিয়েই ঢাকার পথ ধরা...            
            
216 বার পড়া হয়েছে
শেয়ার করুন
জামাল বিন ইউনূস

জামাল বিন ইউনূস সিরাজগঞ্জ জেলার সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যধলডোব (বালুহাটা) গ্রামে ৭ ডিসেম্বর ১৯৮২ সনে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতা মরহুম ইউনূস আলী, মাতা জামফুল বেগম। চার ভাই এক বোনের মধ্যে তিনি চতুর্থ। তিনি দাওরাতুল হাদিস (মাস্টার্স সমমান) ও আরবি সাহিত্যের উচ্চতর ক্লাস দাওরাতুল হক আদর্শ বহুমুখী মাদরাসা, শহরদিঘী, বগুড়া। লেখালেখির চর্চা ছাত্রজীবন থেকেই। প্রকাশিত গ্রন্থ (সম্মাদনা) ওলি হওয়ার পাথেয়। প্রকাশের পথে 'শান্তি দুঃখের শেষে ও মুক্তির সহজ উপায়'। সাবেক শিক্ষক আল-মাদরসাতুল ইসলামিয়া বাহরুল উলুম (সীমাবাড়ী), সীমাবাড়ী, শেরপুর, বগুড়া।

2 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Make sure you enter all the required information, indicated by an asterisk (*). HTML code is not allowed.