বৃহষ্পতিবার, 12 মার্চ 2015 07:26

সুরঞ্জনা

লিখেছেন
লেখায় ভোট দিন
(1 ভোট)
                সুরঞ্জনা, যে কথা তোমাকে বলা হয়নি
হয়তো আর কোন দিন বলবোনা।
একাকীত্ব এ জীবনের প্রয়োজনে 
বুকের গহীনে হৃদয় কুঠুরে
না বলা কিংবা না পাওয়ার যন্ত্রনাগুলি
সাঁজিয়ে রাখবো রক্ত প্রবাহ পর্যন্ত।
অন্ধকার মধ্যে বয়সী সময়গুলিতে
জীবনের ভুল হিসেব শুদ্রে দেখবো
আর সবার অজান্তে জ্বলে জ্বলে নি:শেষ হবো।
সুরঞ্জনা আমি যে আর পারিনা
আমার যে এখন বড় কষ্ট হয়।
যখন দেখি বুকের ভিতর সুস্থ ভালবাসা
শুকিয়ে যায় নি:সংগতায়।
পায়ের কাছে দু:স্বপ্নের অন্ধকার ভীড় করে অসৌজন্যতায়।
তখন সোজা হয়ে দাঁড়াতে পারিনা স্ব-ভুমিকায়।
সুরঞ্জনা যে লগ্নে জীবন ভুমিকায়
সুকল্যাণের ভালবাসায় হাসবার কথা
তারণ্যের জোয়ারে হেসে খেলে
কোন প্রেয়সীর হাতে হাত রাখার কথা
সে সময়ে কেন এত অন্ধকার আমার জীবনে
কেন এমন হয় সুরঞ্জনা ? কেন?
এমতো হওয়ার কথা ছিলনা
তবে কেন সেই অচেনা সুরে জীবন বীণা বাঁজলো
ইচ্ছেতো ছিল তোমার চোখে, চোখ
হাতে, হাত ঠুটে, ঠুট আর বুকে,বুক রেখে?
জীবনের সমান্তরাল পথটা পাড়ি দিবো বেহিসেবে।
কিন্তু কিছুই পূরন হয়নী আমার
সবই হল প্রয়োজনের বাস্তবতায় অন্তঃসারশূন্য ।
সুরঞ্জনা চেনা বসন্তের আগমনতো প্রয়োজনের সুন্দরের জন্য
ছন্দহীন জীবনে কাব্যিকতার জোয়ার প্রবাহের জন্য
কিন্তু তুমি তখন কিসের আয়োজনে এতো ব্যস্ত
কিসের জন্য আমার নদী বুকে তোল সাগরের ঢেউ।
সীমানার উপারে খুঁজ আরেক সীমান্ত।
সুরঞ্জনা প্রয়োজনের সুন্দরের চেয়ে বসন্ত কী রিক্ত ?
তবে কেন সময়ের চিকিৎসায় ভাংগনের উন্মাদনায় মত্ত ।
সুরঞ্জনা প্রয়োজনের সুন্দরের অপর নাম কী জানিনা?
হয়তো তুমিও জানো না?
তবু আমরা প্রয়োজনের সুন্দরের প্রতিক্ষায় সদা ব্যতিব্যস্ত ।
সেদিন কেন জানি হঠাৎ বললে
তোমার কিসের এতো দু:খ ?
কিসের এতো দীর্ঘশ্বাস?
কিসের জন্য হাহাকারের ঝড় তুল শান্ত মরুর বুকে
হয়তো প্রয়োজনের সুস্থতায় জানতে চেয়েছ এই সব?
আমি বলেছিলাম আমার আকাশের চাঁদ ডুবে যায় অবেলায়,
তুমি হেসে বলেছিলে,
এই সব পাগলামী রাখ ?
কবি মানে পাগল হতে চাও বুঝি?
সুরঞ্জনা তুমি বুঝলেনা? কেন পাগল হতে চাই?
আর কোন সে চাঁদ ডুবে যায় অবেলায়?
হয়তো আর কোন দিন জানবেওনা?
অথচ যেদিন প্রথম প্রাতের প্রথম বাতাসে
শুনবো তুমি নেই সেই সুরঞ্জনা হয়ে
প্রয়োজনের সন্ধিতে মিশে গেছ মাঝ রাতে দুর নক্ষত্রের মাঝে।
সেদিন এই আমি এই খানে
স্ব-ভুমিকায় গড়বো সুরঞ্জনার স্মৃতি সৌধ
আর একাগ্র উপাসনায় কাটিয়ে দিবো
সঞ্চীত জীবনের বাকীটা সময়।
683 বার পড়া হয়েছে সর্বশেষ হালনাগাদ বৃহষ্পতিবার, 12 মার্চ 2015 15:13
শেয়ার করুন
হুমায়ুন আবিদ

হুমায়ুন আবিদ গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলাধীন তাঁতিরসোতা গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। শ্রীপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় হতে এস, এস, সি, পরে শ্রীপুর ডিগ্রী কলেজ হতে এইচ, এস, সি, পরীক্ষায় পাশ করার পর সরকারী সাদ'ত বিশ্ববিদ্যালয়, করটিয়া হতে বি, কম, অনার্সসহ এম, কম সম্পন্ন করার পর বাংলাদেশ নৌ-বাহিনীতে সহকারী কস্ট একাউন্ট্যান্ট পদে যোগদান করেন। ছোট বেলা থেকেই লেখার প্রতি আকৃষ্ট হয়ে পড়েন। বর্তমানে তাঁর লেখা কয়েকটি গানসহ একুশের এলবাম 'বর্ণমালার বর্ণে আঁকা আধুনিক গানের এলবাম একটাইতো ছিল এবং কবিতা আবৃত্তির এলবাম ভাবনার কবিতাগুলি ' সিডি আকারে বের হয়েছে। এছাড়া 'কবিদের নীল পদ্ম' কাব্যে গ্রন্থে সমাজ সচেতনামূলক কবিতা প্রকাশিত হয়েছে।

হুমায়ুন আবিদ এর সর্বশেষ লেখা

7 মন্তব্য

মন্তব্য করুন

Make sure you enter all the required information, indicated by an asterisk (*). HTML code is not allowed.